ছেলে সন্তান হোক এমনটা চান নাকি? তাহলে লক্ষ করুন এই লক্ষণগুলি প্রকাশ পাচ্ছে কিনা!

“ছেলে হবে, না মেয়ে “- এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া কি আদৌ সম্ভব? যদি বলি অবশ্যই সম্ভব, তাহলে কী বলবেন! আসলে কিছু পরীক্ষার মাধ্যমে প্রসবের আগেই জেনে নেওয়া যায় ছেলে হতে চলেছে না মেয়ে। তবে এই ধরনের পরীক্ষা করা একেবারেই বেআইনি। তাহলে উপায়! কোনও চিন্তা নেই, একবার এই প্রবন্ধটি পড়ে ফেলুন। তাহলেই দেখবেন সব প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছেন।

সাধারণত ছেলে সন্তান হওয়ার আগে কিছু লক্ষণ প্রকাশ পেতে শুরু করে।

…যেমন ধরুন…

১. মর্নিং সিকনেস:

একাধিক স্টাডিতে দেখা গেছে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মাথা ঘোরা, বমি-বমি ভাব এবং আরও সব সমস্যা দেখা দিলে মনে কোনও সন্দেহ রাখবেন না যে ছেলে সন্তান হতে চলেছে।

২. কোন দিকে ফিরে ঘুমাচ্ছেন খেয়াল করুন!

এই সময় মা এতটাই ক্লান্ত থাকেন যে শোয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘুম চলে আসে। তারপক্ষে এটা বোঝা সম্ভবই হয় না যে কোন দিকে ফিরে তিনি ঘুমাচ্ছেন। এক্ষেত্রে এই কাজটি করতে হবে স্বামীকে। যদি দেখেন আপনার স্ত্রী বাঁদিকে ফিরে ঘুমচ্ছে, তাহলে আশা রাখতে পারেন যে আপনাদের ছেলেই হবে।

৩. পেটের অবয়ব:

আপনার পেট কি নিচের দিকে বেশি ঝুঁকে গেছে? এমনটা হলে ছেলে সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

৪. হার্ট রেট ওঠা-নামা করবে:

গর্ভাবস্তায় চিকিৎসকেরা প্রায়শই বাচ্চার হার্ট রেট মেপে থাকেন। এই সময় যদি দেখা যায় বাচ্চার হার্ট রেট ১৪০ বিট/ প্রতি মিনিট রয়েছে, তাহলে মনে কোনও সন্দেহ রাখবেন না যে ছেলে বাচ্চাই জন্ম নিতে চলেছে।

৫.ইউরিন কালার:

একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে গর্ভাবস্তায় মায়ের প্রস্রাবের রং যদি গাড় হলদেটে হয়, তাহলে বুঝতে হবে ছেলে সন্তান হতে চলেছে। আর যদি দেখেন উজ্জ্বল হলুদ রঙের প্রস্রাব হচ্ছে, তাহলে এই বিষয়ে কোনও সন্দেহ রাখবেন না যে আপনি মেয়ে সন্তানের মা হতে চলেছেন।

৬. হাতের তালু বারে বারে শুকিয়ে যাবে :

প্রেগন্যান্সির সময় বারে বারে হাতের তালু শুকিয়ে যাওয়ার অর্থ হল ছেলে সন্তান জন্ম নিতে চলেছে।

৭. ব্রণর প্রকোপ বাড়বে:

প্রেগন্যান্সির সময় একাধিক হরমোনের ক্ষরণ ঠিক মতো হয় না। যে কারণে এমনিতেই বিভিন্ন রকমের ত্বকের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। কিন্তু যদি দেখেন ব্রণর সমস্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে তাহলে জানবেন আপনার পেটে ছেলে সন্তান বড় হয়ে উঠছে।

৮. খাবার খাওয়ার ইচ্ছা বাড়বে:

ভাবি মায়ের ক্ষিদে কি খুব বেড়ে গেছে? অল্প সময় অন্তর অন্তরই মনে হচ্ছে পেটে যেন ছুঁচো দৌড়াচ্ছে? তাহলে তো অভিনন্দন জানাতে হয়। কারণ ছেলে সন্তান হওয়ার আগে এমনই সব লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটে থাকে।

৯. ব্রেস্টের মাপ:

গর্ভাবস্তায় ভাবী মায়ের ব্রেস্টের মাপ এমনিতেই বেড়ে যায়। কারণ এই সময় মায়ের শরীরে দুধের সঞ্চয় হতে শুরু করে। সাধারণত এই সময় ডান দিকের থেকে বাঁদিকের ব্রেস্ট একটু বেশি মাত্রায় ভারি হয়ে যায়। কিন্তু যদি উল্টো ঘটনা ঘটতে দেখেন তাহলে নিশ্চিত থাকবেন আপনার ছেলে হতে চলেছে।

১০. ওজন বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে:

মায়ের পেটে ছেলে সন্তান থাকলে দৈহিক ওজন স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেড়ে যায় এবং পেটটা একটু অতিরিক্ত মাত্রায় ফোলা মনে হয়। প্রসঙ্গত, মেয়ে সন্তান পেটে থাকলে সাধারণ মায়ের সারা শরীরেই মেদের হার বৃদ্ধি পায়, এমনকী মুখেও। এই ভাবেই অনেকাংশে বুঝতে পারা সম্ভব হয় যে ছেলে হতে চলেছে না মেয়ে।

81 views